ভোট দিয়ে আপ্লুত নতুন ভোটার ইসরাত

ঢাকা: ‘সারারাত অপেক্ষায় ছিলাম কখন ভোর হবে, কখন ভোট শুরু হবে। ছটফট করেই রাতটা পার করলাম

সকাল হতেই তাড়াহুড়া করে পরিবার নিয়ে চলে এলাম ভোট দিতে’।  প্রথমবার ভোট দেওয়ার অনুভূতির কথা এভাবে জানাচ্ছিলেন ইসরাত।রোববার (৭ জানুয়ারি) ঢাকা-৫ আসনের দনিয়া এ কে উচ্চ বিদ্যালয়ে ভোট দেন তিনি। এর আগে সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়, চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

ইসরাত বাংলানিউজকে বলেন, ছোটবেলায় আমি বড় ভাই-বোন ও পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে ভোটকেন্দ্রে যেতাম।  তখন খুব আফসোস করতাম, কবে আমিও তাদের মতো ভোট দিতে পারবো।আজ আমি অনেক খুশি, প্রথমবারের মতো ভোট দিতে পেরে। ভোটের পরিবেশ ভালো ছিল। কোনো ধরনের হট্টগোল ছিল না, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া নিরাপত্তা ছিল চোখে পড়ার মতো।

এদিকে প্রতিবন্ধকতাকে হার মানিয়ে রিকশায় চড়ে ভোট দিতে কেন্দ্রে আসেন জুলহাস। তিনি বলেন, পাঁচ বছর পর পর জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। যদি নিজেকে প্রতিবন্দ্বী ভেবে ভোট না দিই তাহলে নিজের কাছে ছোট হয়ে থাকবো। তাই কষ্ট করে এসে ভোট দিয়ে গেলাম। আমি কেন্দ্রে আসার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ সদস্যরা আমাকে সহযোগিতা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *