মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা যেসব সুবিধা পাবেন

ফাইল ছবি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পেয়ে টানা চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। ইতোমধ্যেই ২৫ জন পূর্ণ মন্ত্রী ও ১৪ জন প্রতিমন্ত্রীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় শপথ নিবেন নবগঠিত মন্ত্রিসভার সদস্যরা। এ ছাড়া চিফ হুইপ ও বিরোধীদলীয় নেতাও একটি পূর্ণ মন্ত্রীর সমান সুবিধা পান।

গাড়ি, বাড়ি, চিকিৎসা খরচসহ অন্তত ১৩ ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকেন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা। জেনে নেয়া যাক সেসব সুবিধার বিস্তারিত।

বেতন: একজন পূর্ণ মন্ত্রীর মাসিক বেতন ১ লাখ ৫ হাজার টাকা। প্রতিমন্ত্রীদের বেতন ৯২ হাজার টাকা।

বাসাভাড়া : দায়িত্বে আসার পর সব মন্ত্রীরাই সরকারি ব্যয়ে একটি সুসজ্জিত বাসভবন পান বিনা ভাড়ায়। তবে মন্ত্রী সরকারি বাড়িতে না থেকে নিজ বাড়ি বা ভাড়া বাড়িতে থাকেন, সেক্ষেত্রে আলাদা বাসা ভাড়া দেয়া হয়। সরকার থেকে পূর্ণ মন্ত্রীদের বাসা ভাড়া হিসেবে দেয়া হয় ৮০ হাজার টাকা। প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী পান ৭০ হাজার টাকা করে। এছাড়া নিজ বাড়ি বা ভাড়া বাড়িতে থাকলে সেটি রক্ষণাবেক্ষণের জন্যও তিন মাসের বাড়ি ভাড়ার সমান টাকা পাবেন।

এলাকার উন্নয়নে বরাদ্দ: নিজ সংসদীয় এলাকার দাতব্য কাজে বছরে ১০ লাখ টাকা দেয়া হয় একজন মন্ত্রীকে। একই কাজে প্রতিমন্ত্রী পান সাড়ে ৭ লাখ টাকা। মন্ত্রী চাইলে একজন ব্যক্তিকে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা দিতে পারেন আর প্রতিমন্ত্রী দিতে পারেন ৩৫ হাজার টাকা। তবে এই টাকার কোনো নিরীক্ষা হয় না।

আপ্যায়ন ভাতা: মন্ত্রীদের দপ্তরে দেশি-বিদেশি অনেকেই আসেন সাক্ষাৎ করতে। মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে নির্বাচনী এলাকার মানুষও আসেন প্রায়ই। তাদের আপ্যায়নের জন্য মাসে ১০ হাজার টাকা করে পান পূর্ণ মন্ত্রী। এ খাতে প্রতিমন্ত্রী পান সাড়ে ৭ হাজার টাকা। এছাড়া বিমান ভ্রমণের ক্ষেত্রে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী বছরে ১০ লাখ টাকা বিমাসুবিধা পাবেন।

চিকিৎসা খরচ: মন্ত্রীত্ব থাকাবস্থায় মন্ত্রিসভার সদস্যরা অসুস্থ হলে তার পুরো ব্যয়ভার সরকার বহন করে। এ ক্ষেত্রে বলা আছে, চিকিৎসা খরচ সীমাহীন। তবে খরচের ভাউচার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে জমা দিতে হবে।

সরকারি গাড়ি: মন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী সরকারি খরচে একটি গাড়ি পেয়ে থাকেন। গাড়িটি পরিবহন পুল সরবরাহ করে। এছাড়া সরকারি প্রয়োজনে বিশেষ করে নির্বাচনী এলাকায় ভ্রমণের সময় তারা মন্ত্রণালয়ের অধীনে যেকোনো সংস্থা বা দপ্তর থেকে একটি জিপ গাড়ি পাবেন। জ্বালানি বাবদ দৈনিক ১৮ লিটার জ্বালানি তেলের সমপরিমাণ অর্থ দেয়া হয়। মন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী দেশের ভেতরে কোথাও ভ্রমণে গেলে দৈনিক ভাতা পান দুই হাজার করে।

বাড়ির সাজসজ্জার খরচ: সরকারি বাড়ি সাজসজ্জার জন্য প্রতিবছর পাঁচ লাখ টাকা পান একজন মন্ত্রী। প্রতিমন্ত্রী পান চার লাখ টাকা। এছাড়া তাদের বাসভবনে বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি ও টেলিফোন ব্যয় যা আসবে, সরকার পুরোটাই বহন করবে।

মন্ত্রীর ১০ সহায়ক: নিজের পছন্দ অনুযায়ী উপসচিব পদমর্যাদার একজনকে একান্ত সচিব হিসেবে পান মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী। পূর্ণ মন্ত্রী একজন সহকারী একান্ত সচিব এবং সরকারি কর্মকর্তার বাইরে নিজের পছন্দের একজন সহকারী একান্ত সচিব পেয়ে থাকেন। এছাড়া দুজন ব্যক্তিগত কর্মকর্তা, একজন জমাদার, একজন আরদালি, দুজন অফিস সহায়ক ও একজন পাচক পেয়ে থাকেন। প্রতিমন্ত্রী পান একজন একান্ত সচিব, একজন ব্যক্তিগত সহকারী, একজন জমাদার, একজন আরদালি ও একজন অফিস সহায়ক। এছাড়া মন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রী একটি করে মুঠোফোন পাবেন।

চিফ হুইপ ও বিরোধীদলীয় নেতা: একজন পূর্ণ মন্ত্রীর সমান সুযোগ-সুবিধাসহ তারা একজন একান্ত সচিব (পিএস), একজন সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস), দুজন ব্যক্তিগত কর্মকর্তা, একজন বাহক, দুজন অফিস সহায়ক ও একজন পাচক পান। এছাড়া বিরোধী দলীয় নেতাকে আটজন পুলিশ সদস্য, দুজন গানম্যান সুবিধা দেয়া হয়। মন্ত্রীদের মতোই গাড়ি-বাড়ির সুবিধাও পেয়ে থাকেন বিরোধীদলীয় নেতা। হুইপ একজন প্রতিমন্ত্রী পদমর্যাদার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *