দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বয়কটকারী বিরোধী দলগুলোর দাবি অগণতান্ত্রিক বিদেশি নির্বাচন পর্যবেক্ষক

দক্ষিণ এশিয়া ডেমোক্রেটিক ফোরামের নির্বাহী পরিচালক ও সাবেক ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন সংসদ সদস্য পাওলো কাসাকা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ পর্যবেক্ষণের পর দক্ষিণ এশিয়া ডেমোক্র্যাটিক ফোরামের নির্বাহী পরিচালক ও সাবেক ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন সংসদ সদস্য পাওলো কাসাকা জানিয়েছেন, দুই কারণে তিনি দুঃখিত ও মর্মাহত। দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণ পর্যবেক্ষণ শেষে রবিবার (৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁয় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

পর্তুগালের নাগরিক কাসাকা বলেন, ‘আমি মর্মাহত যে সহিংসতা এখনও ঘটছে। দ্বিতীয় যে কারণে আমি দুঃখিত সেটি হচ্ছে বৃহৎ রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ঐকমত্য না হওয়া। এখানে ঐকমত্য হলে পূর্ণ অংশগ্রহণ হতো।’ যারা নির্বাচন বয়কট করেছে তদের দ্রুত গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ফিরে আসা উচিত বলে মনে করেন তিনি।বিরোধী দলের সমালোচনা করে তিনি বলেন, অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন করতে হলে সরকারকে চলে যেতে হবে, এর মানে কী? এটি মৌলিকভাবে একটি অগণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া।

সহিংসতার চক্র থেকে বের হয়ে আসতে হবে এবং এজন্য আলোচনার টেবিলে বসতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, যারা নির্বাচন বয়কট করেছে তাদের যত দ্রুত সম্ভব রাজি হতে হবে সবার সঙ্গে আলোচনায় বসার জন্য। নির্বাচন যাতে কখনও বয়কট না হয় সেটি নিশ্চিত করার জন্য বসতে হবে।

গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া অনুসরণ করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অন্যান্য অনেক দেশের থেকে এগিয়ে রয়েছে এবং এটি একটি ভালো নির্বাচনি প্রক্রিয়া বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *